মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

কৃত্রিম প্রজনন কেন্দ্র

কৃষি তথ্য সেবা পেতে লগ ইন করুন- 

 

www.ais.gov.bd

কৃষকের ঠিকানা

 

প্রকৃত নামঃ ডিজিটাল উপায়ে দ্রুত কৃষি ও তথ্য সেবা/Quick Agriculture & Information Services (QAIS)

সংক্ষিপ্ত নামঃ কৃষকের ঠিকানা

কৃষি সেবায় উদ্ভাবনটি ব্যবহারঃ “QAIS (দ্রুত কৃষি ও তথ্য সেবা)” পদ্ধতির মাধ্যমে কৃষি ও তথ্য সেবা কেন্দ্র বৃদ্ধি পূর্বক সময়মত কাংখিত সেবা নিশ্চিত করণ

উদ্ভাবনের প্রেক্ষাপটঃ

ফসল উৎপাদনের ক্ষেত্রে সৃষ্ট সমস্যার প্রযুক্তিগত সমাধান প্রদানের প্রচলিত পদ্ধতিতে সেবাগ্রহীতাগণকে বেশ কিছু ভোগান্তি পোহাতে হয়, যেমন - ১। সময়মত কাঙ্খিত সেবা প্রাপ্তির অনিশ্চয়তা; ২। সকল সেবা একই কেন্দ্র হতে না পাওয়া; ৩। দূর-দূরান্ত থেকে উপজেলা অফিসে বার বার যাতায়াত; ৪। একটি সেবা পেতে খরচ বেশী হওয়া; ৫। অনলাইন থেকে তথ্য পেতে খরচ লাগে কিংবা প্রত্যন্ত এলাকায় ইন্টারনেট সুবিধা নেই। এসব ভোগান্তির কারণ হলো-১। কৃষকের দোরগোড়ায় প্রযুক্তি সেবা প্রাপ্তির উৎসের অপ্রতুলতা; ২। সেবা প্রাপ্তির কেন্দ্রসমূহ প্রযুক্তিগত তথ্যে সমৃদ্ধ নয়; ৩। মাঠ পর্যায়ে কর্মরত উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তাগণের সেবা প্রদানের নির্দিষ্ট স্থান নেই; ৪। একজন উপ-সহকরীকে অধিক সংখ্যক কৃষক কে সেবা দিতে হয়। উপরোক্ত সমস্যা দূর করে দ্রুত কাংখিত সেবা নিশ্চিত করতে প্রকল্পটি হাতে নেয়া হয়েছে।

উদ্দেশ্যঃ

১। উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা গণের পাশাপাশি ইউআইএসসি উদ্যোক্তা, কৃষক ক্লাব/সমিতি, কৃষক প্রতিনিধি, সার, বীজ ও কীটনাশক বিক্রেতা ও কৃষি সম্পর্কিত এনজিও প্রতিনিধি সমূহকে QAIS সরবরাহপূর্বক প্রশিক্ষণের মাধ্যমে প্রযুক্তিগত তথ্যে সমৃদ্ধ করা;

২। প্রস্তাবিত কৃষি সেবা কেন্দ্রসমূহে QAIS ব্যবহার করে দ্রুত কৃষি ও তথ্য সেবা নিশ্চিত করা;

৩। উপজেলা কৃষি অফিসে বার বার যাতায়াতের সংখ্যা কমানো;

৪। সেবা গ্রহণের খরচ কমানো কিংবা বিনা খরচে সেবা গ্রহণ;

৫। স্মার্ট মোবাইল সেটে আ্যাপস হিসেবে ব্যবহার করে  কৃষক, মহিলা ও প্রতিবন্ধীগণ ঘরে বসেই সেবা নিশ্চিত করা;

৬। ইন্টারনেট কানেকশন বিহীন এলাকার জন্য কৃষি ও তথ্য সেবা নিশ্চিত করা।

প্রাধান্য দান (Priority):

১। মাঠ পর্যায়ে সেবাকেন্দ্রের সংখ্যা বৃদ্ধি সহ প্রযুক্তিগত তথ্যে সমৃদ্ধ করা;

২। দ্রুততম সময়ে কাংখিত কৃষি সেবা নিশ্চিত করা;

৩। সেবা গ্রহণের খরচ ও যাতায়াতের ঝামেলা দূর করা।

জনবলঃ

  • উপজেলা পর্যায়েঃ উপজেলা কৃষি অফিসার, অতিরিক্ত কৃষি অফিসার, কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার, সহকারী কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার, উপ-সহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষণ অফিসার;

  • মাঠ পর্যায়েঃ উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা, ইউআইএসসি উদ্যোক্তা, কৃষক ক্লাব/সমিতি, কৃষক প্রতিনিধি, সার, বীজ ও কীটনাশক বিক্রেতা ও কৃষি সম্পর্কিত এনজিও প্রতিনিধি।

লিংকেজঃ

  • কৃষক
  • সরকারী কর্মকর্তা
  • ইউআইএসসি উদ্যোক্তা
  • এনজিও
  • সমিতি বা ক্লাব
  • সার, বীজ, বালাইনাশক ব্যবসায়ী।

 

বাস্তবায়ন পরিকল্পনা

 


 

ক্রঃ নং

কার্যক্রম

 

 

 

 

 

 

 প্রযুক্তিগত তথ্য, ছবি, ভিডিও সংগ্রহপূর্বক QAIS এর কাজ সম্পন্ন করা

 

 

 

 

 

 

সেবা সহায়তাকারী চিহ্নিতকরণ পূর্বক সেবা কেন্দ্র নিশ্চিত করা

 

 

 

 

 

 

সংশ্লিষ্টদের প্রশিক্ষণ ও QAIS সফটওয়্যার রবরাহ করা

   

 

 

 

 

বাস্তবায়ন কার্যক্রম

 

 

 

 

 

 

মনিটরিং ও মূল্যায়ন

   

 

 

 

 

ইউনিয়ন পর্যায়ে নলেজ শেয়ারিং

   

 

 

 

 

উপজেলা পর্যায়ে কর্মশালা

 

 

কৃষকের ঠিকানা

প্রকৃত নামঃ ডিজিটাল উপায়ে দ্রুত কৃষি ও তথ্য সেবা/Quick Agriculture & Information Services (QAIS)

সংক্ষিপ্ত নামঃ কৃষকের ঠিকানা

কৃষি সেবায় উদ্ভাবনটি ব্যবহারঃ “QAIS (দ্রুত কৃষি ও তথ্য সেবা)” পদ্ধতির মাধ্যমে কৃষি ও তথ্য সেবা কেন্দ্র বৃদ্ধি পূর্বক সময়মত কাংখিত সেবা নিশ্চিত করণ

উদ্ভাবনের প্রেক্ষাপটঃ

ফসল উৎপাদনের ক্ষেত্রে সৃষ্ট সমস্যার প্রযুক্তিগত সমাধান প্রদানের প্রচলিত পদ্ধতিতে সেবাগ্রহীতাগণকে বেশ কিছু ভোগান্তি পোহাতে হয়, যেমন - ১। সময়মত কাঙ্খিত সেবা প্রাপ্তির অনিশ্চয়তা; ২। সকল সেবা একই কেন্দ্র হতে না পাওয়া; ৩। দূর-দূরান্ত থেকে উপজেলা অফিসে বার বার যাতায়াত; ৪। একটি সেবা পেতে খরচ বেশী হওয়া; ৫। অনলাইন থেকে তথ্য পেতে খরচ লাগে কিংবা প্রত্যন্ত এলাকায় ইন্টারনেট সুবিধা নেই। এসব ভোগান্তির কারণ হলো-১। কৃষকের দোরগোড়ায় প্রযুক্তি সেবা প্রাপ্তির উৎসের অপ্রতুলতা; ২। সেবা প্রাপ্তির কেন্দ্রসমূহ প্রযুক্তিগত তথ্যে সমৃদ্ধ নয়; ৩। মাঠ পর্যায়ে কর্মরত উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তাগণের সেবা প্রদানের নির্দিষ্ট স্থান নেই; ৪। একজন উপ-সহকরীকে অধিক সংখ্যক কৃষক কে সেবা দিতে হয়। উপরোক্ত সমস্যা দূর করে দ্রুত কাংখিত সেবা নিশ্চিত করতে প্রকল্পটি হাতে নেয়া হয়েছে।

উদ্দেশ্যঃ

১। উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা গণের পাশাপাশি ইউআইএসসি উদ্যোক্তা, কৃষক ক্লাব/সমিতি, কৃষক প্রতিনিধি, সার, বীজ ও কীটনাশক বিক্রেতা ও কৃষি সম্পর্কিত এনজিও প্রতিনিধি সমূহকে QAIS সরবরাহপূর্বক প্রশিক্ষণের মাধ্যমে প্রযুক্তিগত তথ্যে সমৃদ্ধ করা;

২। প্রস্তাবিত কৃষি সেবা কেন্দ্রসমূহে QAIS ব্যবহার করে দ্রুত কৃষি ও তথ্য সেবা নিশ্চিত করা;

৩। উপজেলা কৃষি অফিসে বার বার যাতায়াতের সংখ্যা কমানো;

৪। সেবা গ্রহণের খরচ কমানো কিংবা বিনা খরচে সেবা গ্রহণ;

৫। স্মার্ট মোবাইল সেটে আ্যাপস হিসেবে ব্যবহার করে  কৃষক, মহিলা ও প্রতিবন্ধীগণ ঘরে বসেই সেবা নিশ্চিত করা;

৬। ইন্টারনেট কানেকশন বিহীন এলাকার জন্য কৃষি ও তথ্য সেবা নিশ্চিত করা।

প্রাধান্য দান (Priority):

১। মাঠ পর্যায়ে সেবাকেন্দ্রের সংখ্যা বৃদ্ধি সহ প্রযুক্তিগত তথ্যে সমৃদ্ধ করা;

২। দ্রুততম সময়ে কাংখিত কৃষি সেবা নিশ্চিত করা;

৩। সেবা গ্রহণের খরচ ও যাতায়াতের ঝামেলা দূর করা।

জনবলঃ

  • উপজেলা পর্যায়েঃ উপজেলা কৃষি অফিসার, অতিরিক্ত কৃষি অফিসার, কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার, সহকারী কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার, উপ-সহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষণ অফিসার;
  • মাঠ পর্যায়েঃ উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা, ইউআইএসসি উদ্যোক্তা, কৃষক ক্লাব/সমিতি, কৃষক প্রতিনিধি, সার, বীজ ও কীটনাশক বিক্রেতা ও কৃষি সম্পর্কিত এনজিও প্রতিনিধি।

লিংকেজঃ

  • কৃষক
  • সরকারী কর্মকর্তা
  • ইউআইএসসি উদ্যোক্তা
  • এনজিও
  • সমিতি বা ক্লাব
  • সার, বীজ, বালাইনাশক ব্যবসায়ী।

 

বাস্তবায়ন পরিকল্পনা

 


 

ক্রঃ নং

কার্যক্রম

 

 

 

 

 

 

 প্রযুক্তিগত তথ্য, ছবি, ভিডিও সংগ্রহপূর্বক QAIS এর কাজ সম্পন্ন করা

 

 

 

 

 

 

সেবা সহায়তাকারী চিহ্নিতকরণ পূর্বক সেবা কেন্দ্র নিশ্চিত করা

 

 

 

 

 

 

সংশ্লিষ্টদের প্রশিক্ষণ ও QAIS সফটওয়্যার রবরাহ করা

   

 

 

 

 

বাস্তবায়ন কার্যক্রম

 

 

 

 

 

 

মনিটরিং ও মূল্যায়ন

   

 

 

 

 

ইউনিয়ন পর্যায়ে নলেজ শেয়ারিং

   

 

 

 

 

উপজেলা পর্যায়ে কর্মশালা

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter